সুস্থ ও ঝলমলে চুলে হেনার ব্যবহার : বেস্ট হেনার ৬টি প্যাক জেনে নিন

চুল রং করা নিয়ে মানুষ কম বেশি অনেক সমস্যায় ভোগে। কোন রঙে চুলের ক্ষতি কম হয় আবার কোন রঙ ব্যবহার করলেও চুলে ভালো রঙ আসবে তা নিয়ে সবারই কম বেশি চিন্তা থাকে। এজন্য অনেকেই এখন ভেষজ জিনিসের দিকে ঝুঁকি থাকে।

পাকা চুল কালো রাখার জন্য তাই আবার হেনা বেছে নিচ্ছেন অনেকে। এতে শুধু চুলে রং হবে এমন না চুলেরও স্বাস্থ্যও ভালো হবে। এজন্য কয়েকটি উপাদান ব্যবহার করলে চুল হবে ঘন, কালো ও লম্বা।

১) সাধারণত চুলে হেনা লাগালে গাঢ় বাদামি রং আসে। কিন্তু তার সঙ্গে চায়ের লিকার আর ডিম মিশিয়ে নিলে চুলে কালো রং আসবে।

২) আপনি চাইলে কফির গুঁড়াও মেশাতে পারেন হেনার সঙ্গে। তার সঙ্গে থাকতে পারে আমলকি।

৩) ঝলমলে চুলের জন্য হেনার সঙ্গে মিশিয়ে নেওয়া যায় টক দই। এতে চুল নরম হয়। চুল লম্বাও হয় তাড়াতাড়ি।

আরো পড়ুন : শ্বেতী রোগের কারণ, লক্ষ্মণ ও চিকিৎসা

জেনে নিন : অনেকেই চুলে ৪-৫ ঘণ্টা হেনা লাগিয়ে রাখেন। এর ফলে চুলের টেক্সচার নষ্ট হয়ে চুল শুকিয়ে যেতে পারে। হেয়ার এক্সপার্টরা মনে করেন, আপনি যদি চুলে রং করার জন্য হেনা লাগিয়ে থাকেন, তাহলে দেড় ঘণ্টার বেশি সময় লাগাবেন না।

চুলে হেনা করবেন কীভাবে? সাথে থাকছে বেস্ট হেনার ৬টি প্যাক
শীত তো এসেই গেল, আর শীত এসে যাওয়া মানেই নিশ্চয়ই আপনার চুলের একগাদা সমস্যার শুরু? চুল পড়া, খুশকি, চুল রুক্ষ হয়ে যাওয়া—যত রাজ্যের ঝামেলা এসে জড়ো হয় শীতের সময়। তা আপনার এই বিচ্ছিরি অবস্থায় চুলের যত্ন কীভাবে নেবেন, ভেবে ভেবে মাথায় নিশ্চয়ই টাক পড়ে যাওয়ার যোগাড়? চাপ নেই। আপনার চুলের এ টু জেড যত্নে এবার আমরা ‘দাশবাসে’র পক্ষ থেকে নিয়ে এলাম চুলে হেনা করার সাত কাহন!

আরো পড়ুন :  নারী-পুরুষের যৌন দুর্বলতা এবং চিকিৎসা

চুলে হেনা কেন করবেন?
হেনার উপকারিতা জেনেই হোক, কি না জেনেই হোক, হেনার হেয়ার প্যাক আপনারা সব্বাই কম-বেশী ব্যবহার করেছেন। চুলের এ টু জেড যত্নে যে হেনা দারুণ কাজ দেয়, এ খবরও আপনাদের সকলেরই মোটামুটি জানা। কিন্তু জানেন কি, হেনা ঠিক কীভাবে আপনার চুলের যত্ন নিতে পারে?

হেনা কিন্তু আপনার চুলকে খুব সুন্দরভাবে কন্ডিশনিং তো করেই, তাছাড়া চুল পড়া, খুশকি, রাফনেস ইত্যাদির হাত থেকে বাঁচিয়ে আপনার চুলকে নরম আর সুন্দর করে তোলে। আসুন জেনে নেওয়া যাক হেনার ৬ টি দারুণ হেয়ার প্যাক।

১. হেনা, ডিম আর দইয়ের হেয়ার প্যাক
চুলকে যদি এই শীতেও গ্লসি আর শাইনি করে তুলতে চান, তাহলে এই হেয়ার প্যাকটা কিন্তু আপনার জন্যে মাস্ট। এর ডিপ প্রোটিন ফর্মুলা আপনার চুলকে খুব সুন্দরভাবে কন্ডিশনিং করে ও চুলে দরকারি পুষ্টির যোগান দেয়।

আরো পড়ুন : ডায়াবেটিস প্রতিকারে শক্তিশালী ভেষজ

উপকরণ

২ চামচ হেনা পাওডার, ১ চামচ শিকাকাই পাওডার, ১ চামচ দই, ১ টা ডিম।

পদ্ধতি

একটা বাটিতে জল দিয়ে হেনা আর শিকাকাইয়ের পেস্ট বানিয়ে নিন। এবার সারারাত ওটা রেখে দিন। পরের দিন ডিম আর দই নিয়ে ওতে ভালো করে মেশান। এবার চুলের গোড়া থেকে পুরো লেংথে ভালো করে মেখে নিন। ১ ঘণ্টা মতো রেখে হালকা শ্যাম্পু দিয়ে মাথা ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে একদিন করে করে দেখুন, দারুণ লাভ হবে।

২. হেনা আর কলার হেয়ার প্যাক
চুলকে গ্লসি আর ম্যানেজেবল যদি করতে চান, তাহলে এই হেনা আর কলার হেয়ার প্যাকটা ট্রাই করুন।

উপকরণ

২ চামচ হেনা, ১ টা পাকা কলা।

পদ্ধতি

সামান্য জল দিয়ে হেনার একটা ঘন পেস্ট মতো বানিয়ে সারারাত রেখে দিন। পরের দিন ওতে একটা পাকা কলা ম্যাশ করে নিন। চুলে হালকা শ্যাম্পু করার পর কন্ডিশনারের বদলে এই হেয়ার প্যাক লাগিয়ে নিন। ৫-১০ মিনিট রেখে হালকা গরম জল দিয়ে ভালো করে মাথা ধুয়ে নিন। সপ্তাহে একদিন করুন, দেখবেন আপনার চুল দারুণ কন্ডিশন্ড হয়েছে।

৩. হেনা আর মুলতানি মাটির হেয়ার প্যাক
আপনার চুল যদি অয়েলি হয়, আর চুল পড়ার সমস্যা থাকে, তাহলে এই হেয়ার প্যাক আপনার জন্যে বেস্ট।

উপকরণ

২ চামচ হেনা, ২ চামচ মুলতানি মাটি।

পদ্ধতি

মুলতানি মাটি আর হেনার পাওডার একটা বাটিতে নিয়ে জল দিয়ে স্মুদ একটা পেস্ট বানিয়ে নিন। এরপর ব্রাশ দিয়ে আপনার চুলের সব জায়গায় ইভেনলি লাগিয়ে মাথায় শাওয়ার ক্যাপ আটকে শুয়ে পড়ুন।

পরদিন সকালে মাইল্ড সালফেট ফ্রি শ্যাম্পু দিয়ে শ্যাম্পু করে নিন। দেখবেন আপনার অয়েলি স্ক্যাল্পের জ্বালা এই একটা ওয়াশেই ভ্যানিশ! আর চুল পড়াও কত কম। সপ্তাহে একদিন করুন।

৪. হেনা আর আমলার হেয়ার প্যাক
আমলকী চুলের জন্য এমনিতেই ভালো। আর এতে থাকা মেথি আপনার চুলের বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। আর চুল পড়ার সমস্যাকে কমায়।

আরও পড়ুন: বীর্যমনি ফল বা মিরছিদানার উপকারিতা

উপকরণ

১ কাপ আমলা পাওডার, ৩ চামচ হেনা পাওডার, ২ চামচ মেথি গুঁড়ো, ১ টা ডিমের সাদা অংশ, ১ টা লেবু।

আরো পড়ুন : অর্শ গেজ পাইলস বা ফিস্টুলা রোগের চিকিৎসা

পদ্ধতি

হেনা, আমলা আর মেথি গুঁড়োর একটা স্মুদ পেস্ট তৈরি করে নিন। এবার ওতে ডিম আর পাতিলেবু মিশিয়ে এক ঘণ্টা মতো রেখে দিন, তারপর ব্রাশ দিয়ে স্ক্যাল্পে আর চুলে ভালো করে লাগান।

৪৫ মিনিট মতো রেখে মাইল্ড সালফেট ফ্রি শ্যাম্পু দিয়ে মাথা ভালো করে ধুয়ে নিন। অন্তত একমাস নিয়ম করে সপ্তাহে একদিন করে করুন। উপকার না পেলে আমাদের বলবেন।

৫. হেনা আর জবাফুলের পাতার হেয়ার প্যাক
জবাফুল তো চুল গজাতে ব্যবহার করেই এসেছেন। কিন্তু জানেন কি, আপনার মাথার খুশকি তাড়াতে আর চুলকে সিল্কি বানাতে জবাফুলের পাতা দারুণ উপকারী?

উপকরণ

হেনার গুঁড়ো ৩ চামচ, জবাফুলের পাতা ৬-৭ টি, পাতিলেবু ১ টি।

পদ্ধতি

হেনা আর জবাফুলের পাতা একসাথে মিক্সিতে বেটে স্মুদ পেস্ট করে নিন। এবার ওতে ১ চামচ লেবুর রস মিশিয়ে নিন। এবার এই প্যাকটি মাথায় স্ক্যাল্পে আর চুলে ভালো করে লাগান।

২০-২৫ মিনিট রেখে হালকা শ্যাম্পু দিয়ে মাথা ধুয়ে নিন। সপ্তাহে একদিন করে করুন, দেখবেন এই শীতে আপনার সব খুশকি ভ্যানিশ!

৬. হেনা আর কফির হেয়ার প্যাক
হেনা আর কফির এই হেয়ার প্যাক কিন্তু আপনার চুলে ন্যাচারালি রঙ করতে সাহায্য করে।

উপকরণ

৫ চামচ হেনা, ১ চামচ কফি, ১ কাপ জল।

পদ্ধতি

জলের মধ্যে কফির পাওডার ফুটিয়ে নিন। এরপর কফি গরম থাকা অবস্থাতেই ওতে হেনার পাওডার মেশান। দেখবেন ওতে যেন কোনো লাম্প না থাকে। এবার আপনার মাথার স্ক্যাল্পে আর চুলে ভালো করে মাখিয়ে ঘণ্টা চারেক রেখে ধুয়ে ফেলুন।

মাসে একবার করলে দেখবেন আপনার চুলে হালকা ব্রাউনিশ একটা ভাব এসেছে।

হেনার হেয়ার প্যাক তো দেখলেন। কিন্তু কোন হেনা লাগাবেন আপনার চুলে?

১. গোদরেজ নূপুর হেনা, ৪০০ গ্রাম
এই হেনা কিন্তু সব থেকে পুরনো। যারা ব্যবহার করেছেন, তাঁরা তো জানেনই এর কামাল।

২. ভি.এল.সি.সি. আয়ুর্বেদিক হেনা
এই হেনার একটা প্যাকের সাথে আপনি আরও একটা হেনার প্যাক পাবেন। অ্যামাজনে অর্ডার দিন।

৩. বায়োটিক বায়ো হেনা ফ্রেশ পাওডার
বায়োটিক বায়োর সমস্ত প্রোডাক্টই ভালো। তাই এই হেনাও আপনি নিশ্চিন্তে ব্যবহার করতে পারেন আপনার হেয়ার প্যাকে।

এবার থেকে আপনার চুলের যত্নে হেনার হেয়ার প্যাক ব্যবহার করুন, আর এই শীতেও নিশ্চিন্তে থাকুন।

সারাদেশে কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে বিশ্বস্ততার সাথে ঔষধ ডেলিভারী দেওয়া হয়।

ঔষধ পেতে যোগাযোগ করুন :

হাকীম মিজানুর রহমান (ডিইউএমএস)

হাজীগঞ্জ, চাঁদপুর।
ইবনে সিনা হেলথ কেয়ার
একটি বিশ্বস্ত অনলাইন স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠান।

মুঠোফোন : 01742-057854

(সকাল দশটা থেকে বিকেল ৫টা)

ইমো/হোয়াটস অ্যাপ : 01762-240650

ই-মেইল : ibnsinahealthcare@gmail.com

সারাদেশে কুরিয়ার সার্ভিসে ঔষধ পাঠানো হয়।

শ্বেতীরোগ একজিমাযৌনরোগ, পাইলস (ফিস্টুলা) ও ডায়াবেটিসের চিকিৎসক।

শেয়ার করুন: