সব সময় মেজাজ ভালো রাখতে যা খাবেন

আমরা কী খাচ্ছি তার ওপর আমাদের শারীরিক ও মানসিক উভয় স্বাস্থ্যই নির্ভর করে। আপনি কোন খাবার খাচ্ছেন তা কিন্তু নির্ধারণ করে দেবে আপনি কেমন অনুভব করবেন। বিশেষজ্ঞরা এমনটাই বলছেন। আপনি নিশ্চয়ই মাঝে মাঝে শুনে থাকেন যে চকোলেট মেজাজ ভালো রাখে। ঠিক তেমনই কার্বোহাইড্রেটও মেজাজ ভালো রাখতে পরিচিত।

খাবারে কিছু নির্দিষ্ট উপাদান থাকলে তা আপনাকে উচ্ছ্বসিত রাখতে পারে বলে জানান ভারতের জাসলোক হাসপাতাল এবং রিসার্চ সেন্টারের প্রধান ডায়েটিশিয়ান ডেলনাজ চান্দুওয়াদিয়া। তিনি বলেন, অনেক গবেষণায় খাদ্য এবং মস্তিষ্কের স্বাস্থ্যের মধ্যে সম্পর্ক প্রমাণিত হয়েছে। তিনি কিছু খাবারের কথা উল্লেখ করেছেন যা মেজাজ ভালো রাখতে সাহায্য করে।

কোকো বা ডার্ক চকোলেট

ডার্ক চকোলেটে আছে উচ্চমাত্রায় ট্রিপটোফান যা আমাদের মস্তিষ্ক সেরোটোনিন তৈরি করতে ব্যবহার করে, এটি একটি নিউরোট্রান্সমিটার। সেরোটোনিন একটি মূল হরমোন যা আমাদের মেজাজ স্থিতিশীল করতে সাহায্য করে। তাই মেজাজ ধরে রাখতে চাইলে চকোলেট খেতে পারেন। তাতে যেন অন্তত সত্তর শতাংশ ডার্ক চকোলেট থাকে সেদিকে খেয়াল রাখবেন।

গ্রিন টি

ক্যাটেচিন এর মতো অ্যান্টিঅক্সিডেন্টে ভরপুর গ্রিন টি। এটি মস্তিষ্কের কার্যকারিতা বাড়াতে সাহায্য করে। সেইসঙ্গে সতর্কতাও বাড়ায়। এটি আপনাকে শান্ত রাখতে এবং স্মৃতিশক্তি উন্নত করতে সাহায্য করে। তাই নিয়মিত গ্রিন টি পান করার অভ্যাস করুন।

ওমেগা-৩ সমৃদ্ধ খাবার

এ ধরনের খাবারের একাধিক উপকারিতা রয়েছে। এটি একটি অপরিহার্য ফ্যাটি অ্যাসিড যা হৃদরোগ নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করে, ওজন কমাতে অবদান রাখে, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট হিসাবে কাজ করে, জয়েন্টগুলো ভালো রাখে। এটি হতাশা মোকাবেলায় সহায়তা করে। আমরা স্যামন মাছ, চিয়া বীজ, বাদাম ইত্যাদির মতো খাবারে ওমেগা ৩ খুঁজে পেতে পারি, এমনটাই বলেন ডেলনাজ চান্দুওয়াদিয়া।

বেল পেপার

বেল পেপার ভিটামিন এ-তে ভরপুর, ভিটামিন বি৬ এর একটি উৎস। এটি স্বাভাবিক মস্তিষ্কের বিকাশ এবং কার্যকারিতার জন্য অপরিহার্য পুষ্টি এবং শরীরকে সেরোটোনিন এবং নোরপাইনফ্রাইন (মেজাজকে প্রভাবিত করে) হরমোন তৈরি করতে সাহায্য করে। আপনার প্রতিদিনের সালাদে রঙিন বেল পেপার রাখুন। রান্নার বদলে কাঁচা খেলে বেশি উপকার পাবেন।

পাতাযুক্ত সবুজ শাকসবজি

পালং শাক, মেথিতে বি ভিটামিন ফোলেট থাকে। ফোলেটের অভাব সেরোটোনিন, ডোপামিন এবং নোরাড্রেনালিন (মেজাজের জন্য গুরুত্বপূর্ণ নিউরোট্রান্সমিটার) এর বিপাককে বাধাগ্রস্ত করতে পারে। তাই মেজাজ ভালো রাখতে সবুজ পাতাযুক্ত শাকসবজি খান নিয়মিত।

ফার্মেন্টেড ফুড

প্রোবায়োটিক ব্যাকটেরিয়া বাড়াতে এবং অন্ত্রের স্বাস্থ্য বজায় রাখতে সাহায্য করে এ ধরনের খাবার। বাটারমিল্ক, আচার, দই জাতীয় খাবার প্রোবায়োটিকের সমৃদ্ধ উৎস। এগুলো আমাদের মেজাজকে ভালো রাখে।

বাদাম

ভিটামিন, খনিজ, প্রোটিন এবং চর্বি সমৃদ্ধ খাবার হলো বাদাম। এছাড়াও বাদামে থাকে পর্যাপ্ত ম্যাগনেসিয়াম। শরীরে ম্যাগনেসিয়ামের অভাব হলে তা বিষণ্নতার ঝুঁকি বাড়াতে পারে।

ক্যাফেইন

ক্যাফেইন গ্রহণ করলে তা ডোপামিন নিঃসরণের মাধ্যমে আমাদের কর্মক্ষমতা এবং মেজাজ উন্নত করতে সাহায্য করে। কফি খেলে যদি খিটখিটে, অনিদ্রা ইত্যাদি প্রতিক্রিয়া দেখা দেয় তবে তা এড়িয়ে চলুন। এক্ষেত্রে ক্যাফেইনমুক্ত পানীয় যেমন গ্রিন টি বা রং চা আপনাকে সাহায্য করতে পারে।

প্রিয় পাঠক,আমরা প্রতিটা রোগ সম্পর্কে আপনাকে তথ্য দেই, সচেতন করি। আমরা এই লেখায় আপনাকে চিকিৎসা প্রদান করি না। কারণ চিকিৎসার বিষয়টি সম্পূর্ণ আপনার রোগের অবস্থা অনুসারে ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন আপনার চিকিৎসক। তাই এই লেখার মাধ্যমে আপনি আপনার রোগ সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে, সচেতন হয়ে চিকিৎসকের সাথে যোগাযোগ করে চিকিৎসা গ্রহণ করবেন।

সারাদেশে কুরিয়ার সার্ভিসের মাধ্যমে বিশ্বস্ততার সাথে ঔষধ ডেলিভারী দেওয়া হয়।

ঔষধ পেতে যোগাযোগ করুন :

হাকীম মিজানুর রহমান (ডিইউএমএস)
হাজীগঞ্জ, চাঁদপুর।
ইবনে সিনা হেলথ কেয়ার
একটি বিশ্বস্ত অনলাইন স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠান।

মুঠোফোন : 01742-057854

(সকাল দশটা থেকে বিকেল ৫টা)

ইমো/হোয়াটস অ্যাপ : 01762-240650

ই-মেইল : ibnsinahealthcare@gmail.com

সারাদেশে কুরিয়ার সার্ভিসে ঔষধ পাঠানো হয়।

শ্বেতীরোগ একজিমাযৌনরোগ, পাইলস (ফিস্টুলা) ও ডায়াবেটিসের চিকিৎসক।

আরো পড়ুন : শ্বেতী রোগের কারণ, লক্ষ্মণ ও চিকিৎসা

আরও পড়ুন: বীর্যমনি ফল বা মিরছিদানার উপকারিতা

আরো পড়ুন : অর্শ গেজ পাইলস বা ফিস্টুলা রোগের চিকিৎসা

আরো পড়ুন :  নারী-পুরুষের যৌন দুর্বলতা এবং চিকিৎসা

আরো পড়ুন : ডায়াবেটিস প্রতিকারে শক্তিশালী ভেষজ ঔষধ

আরো পড়ুন : দীর্ঘস্থায়ী সহবাস করার উপায়